PDA

View Full Version : 29 schoolchildren die in Ctg road crash


Naimul_Hd
July 11, 2011, 06:34 AM
29 schoolchildren die in Ctg road crash

President, PM condole death of students

http://www.thedailystar.net/latest_photo/2011/07/11/2011-07-11__road%20crash.jpg


At least 29 schoolchildren died on the spot as a truck plunged into a roadside pond in Mirsarai upazila of Chittagong on Monday.


Rescuers recovered 29 bodies from the wreckage till filing of this report at about 5:00pm, said Aung Sha Thowai, officer-in-charge (investigation) of Mirsarai Police Station.


Locals said a truck carrying 70/80 school students fell into the pond when it reached Abu Torab Bazar at about 14:45pm, our correspondents covering the incident reported.


The accident occurred when the students, mostly of Abu Torab Government Primary School, were returning from Mirsarai after winning an inter-school football tournament.


Meanwhile, President Zillur Rahman and Prime Minister Sheikh Hasina condoled death of students in the road mishap, reports BSS.



In separate messages of condolence, they prayed for eternal peace of the departed souls and expressed sympathy to the members of bereaved families. Both the president and the prime minister directed the authorities concerned to ensure proper treatment of the injured and conduct quick rescue operation.


http://www.thedailystar.net/newDesign/latest_news.php?nid=30828

Naimul_Hd
July 11, 2011, 06:37 AM
[বাংলা]মিরসরাইয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় ২৮ শিক্ষার্থী নিহত

চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলায় আজ সোমবার বেলা পৌনে দুইটার দিকে বড় পিকআপ উল্টে ডোবায় পড়ে যায়। বিকেল সোয়া চারটা পর্যন্ত এ দুর্ঘটনায় নিহত ২৮ শিক্ষার্থীর লাশ শনাক্ত করা গেছে। নিহতের সংখ্যা বাড়তে পারে। নিহত শিক্ষার্থীদের অধিকাংশই স্কুলছাত্র। এ ছাড়া মাদ্রাসা ও কলেজের শিক্ষার্থীও রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্র জানায়, মিরসরাইয়ের আবু তোরাব-বড়তাকিয়া সড়কের মাঝামাঝি স্থানে দুপুরের দিকে একটি বড় পিকআপ উল্টে যায়। পিকআপটি রাস্তার পাশের ডোবায় পড়লে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় লোকজনের বরাত দিয়ে পুলিশ প্রাথমিকভাবে জানিয়েছে, ওই পিকআপে ৭০-৮০ জন শিক্ষার্থী ছিল। তারা স্থানীয় পর্যায়ে আয়োজিত আন্তস্কুল বঙ্গবন্ধু কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের খেলা দেখে মিরসরাই থেকে বাড়িতে ফিরছিল। পথে তারা এ দুর্ঘটনার শিকার হয়।

দুর্ঘটনার পরপর চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার মো. জেড এ মোরশেদ আশঙ্কা করেছিলেন, পিকআপে থাকা অধিকাংশ শিক্ষার্থী নিহত হয়েছে। এই প্রতিনিধি এলাকাবাসীর কাছে খোঁজ নিয়ে এ পর্যন্ত ২৮ জনের নিহত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেছেন।
[/বাংলা]
http://www.prothom-alo.com/detail/date/2011-07-11/news/169515

Naimul_Hd
July 11, 2011, 06:43 AM
I am speechless. Death toll is expected to be more than 29. Cant even think what is going through on their parents, family and relatives. :(

May Allah rest poor souls in peace and grant them all in Jannat. Ameen.

Rabz
July 11, 2011, 06:44 AM
Inna Lillahi Wa Inna Ilaihi Rajiun.
Sad sad news.

simon
July 11, 2011, 06:48 AM
inna lillahi wa innailaihi rajiun.
Allah help their family.

Naimul_Hd
July 11, 2011, 06:52 AM
[বাংলা]মিরসরাইয়ে ট্রাক খাদে: ৪০ স্কুলছাত্র নিহত (http://banglanews24.com/detailsnews.php?nssl=b98004311446c60521a8831075423 c20&nttl=2011071102525848658&toppos=1)

<hr style="border: 1px solid rgb(214, 214, 214);" color="#ffffff" width="100%"> রমেন দাশগুপ্ত, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট ও রিগান উদ্দিন, সংবাদদাতা
বাংলানিউজটোয়েন্ট ফোর.কম
<table align="left" border="0" cellpadding="5" cellspacing="0"> <tbody><tr><td>http://www.banglanews24.com/images/imgAll/2011June/ctg-bg120110711160358.jpg</td></tr> <tr><td>ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্ট ফোর.কম
</td></tr> </tbody></table> মিরসরাই থেকে: চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের সড়ক দুর্ঘটনায় এ পর্যন্ত অন্তত ৪০ শিশু কিশোরের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আহত রয়েছে আরও অনেকে। তবে প্রশাসন অন্তত ২৭ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে।

আবু তোরাব-বড়বাকিয়া মহাসড়কে স্কুল শিক্ষার্থীদের বহনকারী একটি ট্রাক সোমবার দুপুরে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

ঘটনাস্থল থেকে স্থানীয়রা জানান ঘটনার পরপরই স্থানীয় নারী-পুরুষ দ্রুত ছুটে এসে উদ্ধার অভিযান শুরু করে।

উদ্ধারকারীদের একজন একরামুল বাংলানিউজকে বলেন তারা অন্তত ৬৫ জনকে উদ্ধার করেছেন যাদের অনেকেই ছিলো মৃত এবং কেউকেউ গুরুতর আহত অবস্থায় জীবিত।

হতাহতরা সবাই আবু তোরাব উচ্চ বিদ্যালয় ও আঞ্জুমাননেসা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র। মিরেরসরাই স্টেডিয়ামে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে অংশ নিয়ে ফেরার পথে এ দুর্ঘটনায় পরে তারা।

চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক ফয়েজ আহমেদ বাংলানিউজের কাছে ২৬ জনের ও পুলিশ সুপার জেড এম মোরশেদ ২৭ জনের মৃত্যু নিশ্চিত করেন। পুলিশ সুপার জানান মিরসরাই ক্লিনিকে ১১টি থানা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১৩টি ও চট্টগ্রাম মেডিকেলে ৩টি লাশ রয়েছে।

তবে মৃতের সংখ্যা আরও বেশি হবে বলেই স্বীকার করেন প্রশাসনের এই দুই কর্তাব্যক্তি।

ক্লিনিকে ও হাসপাতালে রাখা ২৭টি মরদেহের পাশাপাশি আরও ১৫টি লাশ ঘটনার পরপরই স্থানীয়রা নিয়ে গেছে বলে নিশ্চিত করেছে স্থানীয় একাধিক সূত্র। এ নিয়ে তাদের হিসেবে মৃতের সংখ্যা ৪০ জনের বেশি হবে।

এদিকে উপজেলা চেয়ারম্যান গিয়াসউদ্দিন জানান, মৃতের সংখ্যা ৫০ ছাড়িয়ে যেতে পারে। তিনি জানান ঘটনার পরপরই স্থানীয়রা ছুটে এসে সন্তানদের দ্রুত নিজ নিজ বাড়িতে নিয়ে যান। এর সংখ্যা ২৫ জনের বেশি হবে বলে দাবি করেন তিনি।

এদিকে দুর্ঘটনার পর এরই মধ্যে নিহতদের স্বজনরা কেউ ঘটনাস্থলে কেউ ক্লিনিকে আবার কেউ থানায় ভিড় করেছেন। এসব স্থানে সৃষ্টি হয়েছে এক হৃদয় বিদারক পরিস্থিতি। তাদের আহাজারিতে গোটা মিরসরাইয়ে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

দুর্ঘটনায় নিহত একটি শিশুর বাবা থানা প্রাঙ্গনেই হার্ট অ্যাটাকে মারা গেছেন।

এদিকে দুর্ঘটনার পর ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে। [/বাংলা]

Naimul_Hd
July 11, 2011, 06:54 AM
[বাংলা]ট্রাকে ছিল ১৫০ শিশু শিক্ষার্থী (http://banglanews24.com/detailsnews.php?nssl=578d9dd532e0be0cdd050b5bec496 7a1&nttl=2011071104080548668&toppos=2)

<hr style="border: 1px solid rgb(214, 214, 214);" color="#ffffff" width="100%"> মিরসরাই সংবাদদাতা
বাংলানিউজটোয়েন্ট ফোর.কম
<table align="left" border="0" cellpadding="5" cellspacing="0"> <tbody><tr><td> http://www.banglanews24.com/images/imgAll/2011June/SM/ctgsmm-sm20110711161252.jpg </td></tr></tbody></table> মিরসরাই: মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনার খবরে শোকের শহরে পরিণত হয়েছে চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলা সদর।

এরই মধ্যে অন্তত ৪০ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করা গেছে। আহত রয়েছে অর্ধ শতাধিক।

কতজন শিশু কিশোর ছিলো ওই ট্রাকটিতে সে প্রশ্ন এখন অনেকের। কেউ কেউ দাবি করছে শিক্ষার্থীদের বহনকারী ট্রাকটিতে ১৫০ জনের মত শিশু শিক্ষার্থী ছিল ।

ছাত্ররা জেলা পর্যায়ে আয়োজিত আন্তঃস্কুল বঙ্গবন্ধু স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্টের খেলা দেখে মিরেরসরাই থেকে বাড়ি ফিরছিল। খেলার পর উচ্ছসিত শিশু-কিশোরগুলো ট্রাকে ঠাসাঠাসি করে ওঠে বলে জানায় স্থানীয়রা।

এরা সবাই মিরসরাইয়ের আবু তোরাব উচ্চ বিদ্যালয় ও আবু তোরাব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র। [/বাংলা]

MohammedC
July 11, 2011, 07:06 AM
Innalillahi Wa Inna ilahi Rajeun. Very sad news.

WarWolf
July 11, 2011, 08:22 AM
Inna Lillahi Wa Inna Ilaihi Rajeun. May Allah keep them in peace forever.

roman
July 11, 2011, 08:26 AM
I am speechless. Death toll is expected to be more than 29. Cant even think what is going through on their parents, family and relatives. :(

May Allah rest poor souls in peace and grant them all in Jannat. Ameen.
Ameen. So sad to hear this. inna lillahi wa inna ilaihi rajeun..

Akib
July 11, 2011, 08:58 AM
That is so sad. I hope they rest in peace.


But why are there 80 people in a truck?

Alien
July 11, 2011, 09:17 AM
When on God's earth are they going to stop parading picture of the decease on newspaper? This is what I call moronic journalism.

Banglaguy
July 11, 2011, 09:50 AM
That is so sad. I hope they rest in peace.


But why are there 80 people in a truck?

Agreed, what are 80 people doing in a tiny truck?

Tiger Manc
July 11, 2011, 09:58 AM
Inna lillahi wa inna ilaihi rajioon

Beamer
July 11, 2011, 10:05 AM
So sad. I agree, how do you pack in so many kids in one truck? Life has no value in our country. Its just a stat.

RazabQ
July 11, 2011, 11:03 AM
In any school outing here you have the one fuddyduddy, the killjoy, who insists that no you can't just jump onto a truck, safety precautions should be taken. Why oh why do we Bangalees not have a few such people? What's the word I'm looking for? Responsible! Yes why is there such a lack of a sense of responsibility with our most precious resources!

al Furqaan
July 11, 2011, 11:05 AM
agreed. who's idea was it to transport kids in a truck?

nakedzero
July 11, 2011, 12:54 PM
Isshh!! May ALLAH bless them Jannah and forgive them, and give enough patience to their parents.

ialbd
July 11, 2011, 12:58 PM
Inna Lillahi Wa Inna Ilaihi Rajewun....

This is such a horrible news.... death toll is at 42 now...

Banglaguy
July 11, 2011, 01:10 PM
The toll is 43 :(

http://www.thedailystar.net/newDesign/news-details.php?nid=193873

Nadim
July 11, 2011, 01:27 PM
Inna Lillahi Wa Inna Ilaihi Rajeun.

Keno allah? dunia te ki ar manush chilo na? ei nispap bacchader e dekhla? :head:

Banglaguy
July 11, 2011, 01:29 PM
The value of life is more precious than humans take it to be. This will not affect just 42 people, but their families, friends and neighbours. Thousands will be affected..

deshimon
July 11, 2011, 02:10 PM
Why did so many kids transport in truck? Can you think about the situation of their parents?

Naimul_Hd
July 11, 2011, 07:18 PM
[বাংলা]চালকের আসনে হেলপার কথা বলছিল মুঠোফোনে (http://www.prothom-alo.com/detail/date/2011-07-12/news/169738)

‘ট্রাকটি যখন এলোমেলো চলছিল, তখনই আমাদের ভয় হচ্ছিল। একপর্যায়ে ট্রাকটি দ্রুতগতিতে সেতুর ওপর উঠলে প্রচণ্ড ধাক্কা খেয়ে আমরা ট্রাকের মধ্যেই ছিটকে পড়ি। তখন দেখি, চালক মোবাইলে কথা বলছেন, আর উল্টো দিক থেকে আসছে একটি নছিমন। মুহূর্তের মধ্যে আমরা ডিগবাজি খেয়ে পড়ে গেলাম পানির ভেতর। কাদাপানি খাওয়ার পর এলাকার মানুষ এসে আমাদের উদ্ধার করে।’

ট্রাক দুর্ঘটনা থেকে বেঁচে যাওয়া এমরান হোসেন গতকাল সন্ধ্যায় প্রথম আলোর কাছে এভাবে দুর্ঘটনার বর্ণনা দেয়। সে আবু তোরাব উচ্চবিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্র। চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের বড়তাকিয়া-আবু তোরাব সড়কের সৈদালি এলাকায় গতকাল দুপুরে তাদের বহনকারী ট্রাক পানিতে পড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

বেঁচে যাওয়া একই স্কুলের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র বোরহান ও ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র নিজাম উদ্দীনও একই বক্তব্য দিয়েছে। তারা বলে, ট্রাকটির মালিক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন। ট্রাকটি যাওয়ার সময় চালক নিজেই চালিয়েছিলেন, আর ফেরার সময় চালকের আসনে বসে সহকারী বা হেলপার মফিজ। ট্রাকে গাদাগাদি করে লোক তোলা হয়। এমনকি মাঝপথেও কিছু লোক তোলা হয়। তিন শিশু-কিশোর এ বর্ণনা দেওয়ার সময় ভয়ে কাঁপছিল।

একই ধরনের কথা বলেন ঘটনাস্থলে উপস্থিত পুলিশ সুপার জেড এ মোরশেদ। তিনি বলেন, ‘আমরা নিশ্চিত হয়েছি, ট্রাকটি হেলপার চালাচ্ছিল। এখন চালক-হেলপার উভয়কেই খোঁজা হচ্ছে।’
জানা গেছে, দ্রুতগতিতে যখন ট্রাকটি দক্ষিণ সৈদালির উঁচু সেতুর ওপর ওঠে, তখন চালক মোবাইলে কথা বলছিল। হঠাৎ নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে সে। এ সময় উল্টো দিক থেকে একটি নছিমন আসছিল। চালক পাশ কেটে যাওয়ার চেষ্টা করলে অমনি উল্টে গিয়ে খাদে পড়ে ট্রাকটি।

মিরসরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইফতেখার হাসান বলেন, ‘আমরা যখন ঘটনাস্থলে যাই, তখন ট্রাকটির চারটি চাকাই ওপরের দিকে ছিল। স্থানীয় লোকজন ট্রাকটি সরানোর চেষ্টা করছিল। ট্রাকের চারদিকের কাঠের বেষ্টনী উল্টে পড়ার পর এটি একটি খাঁচায় পরিণত হয়। এই খাঁচা থেকে ছোট ছোট ছেলেরা বের হতে পারেনি বলে তাদের মর্মান্তিক মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়তে হয়।’
[/বাংলা]

Banglatiger84
July 12, 2011, 01:40 AM
Horrible news

Inna lillahi wa inna ilaihi rajiun, may the parents and family of the deceased get the strength they need for this loss .

Isnaad
July 12, 2011, 06:12 AM
Death toll rises to 70. Indeed a day to mourn. :(
<br />Posted via BC Mobile Edition (Opera Mobile)

RazabQ
July 12, 2011, 04:06 PM
Situations like this make me favor the death penalty!

akabir77
July 12, 2011, 04:22 PM
today they confirmed that the helper was in a hurry as he had to go to fenny to get rice for the mill that he works for. BTW he didn't die and fled the scene...

Most tragic thing was the truck created a cage for the kids and they could not get out despite knowing how to swim. my hurt goes out the parents. hope Allah gives them the strength

nakedzero
July 13, 2011, 05:44 AM
[বাংলা]মা আমাকে ক্ষমা কোরো
আর কোনো দিন তোমাকে জ্বালাবোনা,
এইবারই শেষ মা।
আমায় কাপড় পড়িয়ে দাও
মাটিতে শুইয়ে দাও শেষ বারের মত।
তোমার ছেলে আর কখনো বলবে না
"আজ স্কুলে যাবোনা মা,
আজ একটু খেলি, প্লিজ"
মা আর কোনো দিনও না,
কখনো বলব না, "আমার খিদে লেগেছে মা।"
কখনো আর কেউ আর আসবে না
তোমার ছেলের দুষ্টামীর বিচার নিয়ে।
তোমার শাড়ির আচলে আর কখনো লুকাবোনা মুখ।
বাবার ভয়ে আর পালাবোনা মা।
বাবাকে বলে দিও, শেষ বারের মত।
আমার কবরের পাশে গিয়ে যেন অশ্রু না ঝরায়।
সবই পারবো আমি মা,
শুধু তোমাদের চোখের পানি ছাড়া।
তোমাদের কষ্ট আমার সহ্য হয়না যে মা।
আমায় তুমি ক্ষমা কোরো মা।
শেষ বিদায়ের দিনে একটু হাসো,
আমার লক্ষী মা। [/বাংলা]


SOURCE (http://www.somewhereinblog.net/blog/linkonhusain/29411846)

Murad
July 17, 2011, 07:50 AM
[বাংলা]যশোর বোর্ডের চেয়ারম্যান আবুল বাশার প্রত্যাহার

নিজস্ব প্রতিবেদক | তারিখ: ১৭-০৭-২০১১

http://paloadmin.prothom-aloblog.com:8088/resize/maxDim/340x1000/img/uploads/media/2011-07-13-18-03-34-001789800-5.gif
সংবর্ধনা নিচ্ছেন যশোর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান আবুল বাশার মোল্লা। কুষ্টিয়া সদর উপজেলার বারখাদা আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে গতকাল তোলা ছবি

প্রথম আলো
মিরসরাইয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ছাত্রদের স্মরণে সরকার ঘোষিত তিন দিনের শোক পালনের সময় একটি স্কুল থেকে সংবর্ধনা নেওয়ায় আবুল বাসার মোল্লাকে যশোর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানের পদ থেকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। আজ রোববার শিক্ষাসচিব কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী প্রথম আলোকে এ কথা জানান।

১১ জুলাই সোমবার চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত স্কুলছাত্রদের স্মরণে শিক্ষা এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সারা দেশে গত মঙ্গল থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত তিন দিনের শোক দিবস ঘোষণা করেছিল। কিন্তু শোক দিবসের দ্বিতীয় দিন বুধবার যশোর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান আবুল বাশার মোল্লা কুষ্টিয়া সদর উপজেলার বারখাদা আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে আজ তাঁকে বোর্ড চেয়ারম্যানের পদ থেকে প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়।[/বাংলা]

http://www.prothom-alo.com/detail/date/2011-07-17/news/171059

:up: :up:

nakedzero
July 18, 2011, 01:07 PM
http://www.banglanews24.com/images/imgAll/2011June/SM/mofiz-uddin-sm20110718183800.jpg


[বাংলা]মিরসরাই ট্রাজেডির খলনায়ক চালকের আসনে বসা হেলপার মফিজ উদ্দিনের ছবির সন্ধান শেষ পর্যন্ত মিলেছে। বাংলানিউজ প্রতিনিধির নিরলস অনুসন্ধানে ছবিটি সনাক্ত করা সম্ভব হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ১১জুলাই মিরসরাইয়ে মর্মান্তিক ট্রাক দুর্ঘটনায় ৪৩ স্কুলছাত্রসহ মোট ৪৫জন নিহত হয়। ঘটনা পরবর্তী সময়ে পুলিশ কর্মকর্তারা ট্রাকটির চালক (হেলাপার) মফিজ উদ্দিনের বাড়ি গিয়ে তার স্ত্রী রোকেয়া বেগমের কাছে মফিজ উদ্দিনের ছবি চাইলে তার কোনও ছবি নেই বলে তিনি জানান। পরে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, দুর্ঘটনার পরপর এর জন্য দায়ী ব্যক্তি হিসেবে হেলপার মফিজের নাম জানাজানি হওয়ার পর বাড়িতে থাকা তার সব ছবি পুড়িয়ে ফেলেন স্ত্রী রোকেয়া বেগম।

এরপর মফিজের ছবি সংগ্রহ করতে শুরু হয় বাংলানিউজের অনুসন্ধান তৎপরতা। খোঁজ নেওয়া হয় উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কাছে। ছবিযুক্ত ভোটার তালিকায় অস্পষ্ট ছবি থাকায় মফিজের সঠিক ছবি সনাক্ত করা অনেকটা কষ্টকর হয়ে পড়ে। পরে মিরসরাইয়ের আবুতোরাব এলাকার প্রত্যেকটি স্টুডিওতে খোঁজ নেওয়া হলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক স্টুডিও মালিক জানান- কিছুদিন আগে মফিজ ব্যক্তিগত প্রয়োজনে তার স্টুডিওতে একটি ছবি তুলেছিল।

বাংলানিউজ প্রতিনিধি সেই ছবিটি সংগ্রহ করেন। এরপর দুর্ঘটনায় ভাগ্যগুনে বেঁচে যাওয়া শিক্ষার্থী ওয়াহিদুল ইসলাম, নয়ন শীল, পলাশ, নাজমুল হুদা, আলমগীর হোসেন, আলী নেওয়াজ উদ্দিন নোমান ও আবুল কাশেমকে ছবিটি দেখালে তারা তা সনাক্ত করে।

তারা দীপ্ত কন্ঠে বলে, এই সেই মফিজের ছবি। যে দুর্ঘটনা কবলিত পিকআপটির চালকের আসনে বসে ফোনে কথা বলতে বলতে গাড়ি চালাচ্ছিল।

তারা বলে, মফিজের কারণে আমরা প্রায় অর্ধশত সহপাঠীকে হারিয়েছি। আমরা তার ফাঁসি চাই।

মফিজের মত আর যেন কোনও অদক্ষ হেলপার চালকের আসনে বসতে না পারে সেজন্য সংশ্লিষ্টদের সুদৃষ্টি কামনা করে আহত এসব শিশু।

অবশেষে বহুপ্রতিক্ষিত সেই ছবি সংগ্রহ করা সম্ভব হলেও ছবির ওই ব্যক্তিই মফিজ কীনা তা নিশ্চিত হতে বাংলানিউজ প্রতিনিধি সংগ্রহীত ছবিটি মায়ানী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কবির হোসেন নিজামীকে দেখান। চেয়ারম্যানও বলেন, ‘এ ছবিই মফিজের।’

মধ্যম মায়ানী ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সঞ্জীব চক্রবর্তীকে ছবিটি দেখানো হলে তিনিও বলেন, ‘মফিজ আমার আমার ওয়ার্ডের লোক। আমি তাকে ভালো করেই চিনি।’

বাংলানিউজের সংগ্রহীত ছবিই মফিজের ছবি বলে নিশ্চিত করেন তিনি।

এরপর মধ্যম মায়ানী ওয়ার্ডের স্থানীয় বাসিন্দা হাসান, গিয়াস উদ্দিন, আবু আনসার নিজামীসহ একাধিক ব্যাক্তিকে ছবিটি দেখনো হয়। তারাও ছবিটি মফিজের বলে জানান।[/বাংলা]


SOURCE (http://www.banglanews24.com/detailsnews.php?nssl=69632ad79d1a988db1e8a9011de40 e24&nttl=2011071806013149591&toppos=1)

akabir77
July 18, 2011, 02:55 PM
we should sentence his death in saudi style so that no one in future can dare to do the same...

nakedzero
July 21, 2011, 12:42 AM
Police have arrested the driver of the truck that had plunged into a roadside canal in Mirsarai, killing 38 students and two others, from a relative's house at Kaunia in Barisal after nine days of the accident.

Kaunia police sub-inspector Hemayel Kabir told bdnews24.com that they arrested Mofiz Uddin from his niece's in-law's house at Batna village of Charbaria union in the district on Thursday.

The victims were returning home from a football match when the truck they hired skidded off the road and plunged into a rain-fed canal.

The driver survived and fled the scene immediately after the accident.

He was reportedly talking on his mobile phone when he lost control as he tried to give room to another vehicle coming from the opposite direction.


SOURCE (http://www.bdnews24.com/details.php?cid=2&id=201391&hb=top)

PoorFan
July 21, 2011, 12:56 AM
^Great, now bring that MF to justice.

nakedzero
July 21, 2011, 01:31 AM
http://www.banglanews24.com/images/imgAll/2011June/SM/Barisal-mofiz-edit20110721104349.jpg

[বাংলা]১১ জুলাই ঘটে যাওয়া মিরসরাই ট্রাজেডির ঘাতক ট্রাকের চালক জসিমউদ্দিন মফিজকে বরিশাল সদর উপজেলার বাটনা গ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সকাল পৌনে ৯টার দিকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে বাংলানিউজকে নিশ্চিত করেছেন কাউনিয়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি ) রফিকুল ইসলাম।

`আমি অনুতপ্ত। যে কোনো সাজা মেনে নিতেই প্রস্তুত। পুলিশের হাতে ধরা পড়ার পর এই একটি কথাই বারবার বলছে মিরসরাইয়ের ৪৪ স্কুল ছাত্র নিহত হওয়ার ঘাতক ট্রাকচালক মফিজ।

ওসি জানান, মফিজ ৪ থেকে ৫ দিন আগে বরিশালে বোনের মেয়ের (ভাগ্নি) শ্বশুর ফরিদ খানের বাড়িতে আত্মগোপন করে ছিল। সকালে খবর পেয়ে এসআই হেমায়েল কবির ও এএসআই মনিরের নেতৃত্বে মেট্রো পুলিশের একটি দল মফিজকে গ্রেপ্তার করে।[/বাংলা]


SOURCE (http://www.banglanews24.com/detailsnews.php?nssl=b1fd8ebdb8e7bb7990078b74c7763 753&nttl=2011072109572449983&toppos=1)


Onutopto ?? Attoshomorpon korlo na kano ??

thebest
July 21, 2011, 01:38 AM
after long time I am posting and I agree the driver should be punished. But the real culprit is not the driver nor the one who hired the truck. the real culprit are the people in the ministry. My shoshur bari is adjacant to the ill fated school and one of my wife's cousin is a member of school managment committe. How many of us knew that the school was given 136 taka as transport allowance for the ill fated two way trip. The school committee/ head master was pressurized to bring their students in the stadium. You can not even bring 15 players in 136 Taka and officials wanted the stadium to be packed. So if you wanted to hang the person responsible for this tragedy than hang those people who approved 136 taka per school for tournament as transport fee. As you have seen even after this tragedy schools bring their children by truck and van to attend the competition. I have seen at least two pictures one from commilla and the other from Lalmonirhat. In any civilized country this tournament would have been postponed, minister would resign and a parliamentary inquiry would have been launched; but we are doing our job just paying 20000 taka per death. Now we could pay 20000 taka per death but if we paid 20000 taka per school the whole tragedy could have been avoided

nakedzero
July 21, 2011, 08:56 AM
[বাংলা]চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে ট্রাক খাদে পড়ে ৩৮ স্কুলছাত্রসহ ৪০ জনের মৃত্যুর জন্য যাকে দায়ী করা হচ্ছে, সেই ট্রাকচালক মফিজ উদ্দিন দুর্ঘটনার বর্ণনা দিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, ট্রাকের ব্রেক ফেল করেছিলো।

দুর্ঘটনার নয় দিন পর বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে বরিশাল সদর উপজেলার কাউনিয়া এলাকায় একটি বাড়ি থেকে মফিজকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মফিজ কাউনিয়া থানায় বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে সেদিনের দুর্ঘটনার বর্ননা দেন। এ সময় তাকে বেশ বিমর্ষ দেখাচ্ছিলো।

গত ১১ জুলাইয়ের ওই দুর্ঘটনার পর মফিজকে (৪৫) আসামি করে একটি মামলা হয়। মফিজের বাড়ি মিরসরাই উপজেলার মধ্যম মায়ানি ইউনিয়নের মোক্তারপাড়ায়। দুর্ঘটনার পর পরই সে গা ঢাকা দেয়।

এদিন মিরসরাই স্টেডিয়ামে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট-এর একটি খেলা দেখে শিক্ষার্থীরা ওই ট্রাকে করে ফিরছিলো। পথে সৈদালী নামক স্থানে ট্রাকটি রাস্তা থেকে ছিটকে সড়কের পাশের ডোবায় উল্টে পড়ে। এতে ৩৮ স্কুল ছাত্রসহ ৪০ জনের মৃত্যু হয়।

যেভাবে ঘটেছে দুর্ঘটনা

মফিজ বলেন, মিরসরাই স্টেডিয়ামে খেলা শেষে ছাত্রদের নিয়ে আবু তোরাব উচ্চ বিদ্যালয়ের উদ্দেশ্যে ফিরছিলাম। খেলায় জয়ী হওয়ায় ট্রাকে ছাত্ররা উল্লাস করছিলো। ঘটনাস্থল থেকে কিছু দূরে একটি ছোট সেতু থাকায় ট্রাকের গতি কমিয়ে আনার জন্য ব্রেক করি।

কিন্তু এ সময় ব্রেক ফেল করে। তাৎক্ষণিকভাবে ট্রাকটি দ্বিতীয় গিয়ারে নামিয়ে আনি।

এসময় বিপরীত দিক থেকে একটি মালবাহী ট্রলি আসতে দেখে ট্রাকের সামনের লাইট জ্বালিয়ে বিপদসঙ্কেত দেই। ট্রলি চালক ওই সঙ্কেত বুঝতে না পারায় হাতে নেড়ে তাকে সাইড দেয়ার জন্য বলি।

তারপরও ট্রলিটি সাইড না দেওয়ায় পাশ কাটানোর চেষ্টা করি। এ সময় ট্রাক রাস্তার পাশে চলে আসে এবং সড়কের কিনারের সোলিং ভেঙ্গে চাকা মাটিতে নেমে যায়। এর ফলে ট্রাকটির নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলি। চোখের পলকে ট্রাকটি উল্টে রাস্তার পাশে খাদে পড়ে যায়।

মফিজ জানান, তিনিও পানিতে ডুবে যান। ট্রাকের সামনে চালকের আসনের পাশে বসা ছাত্ররা বাঁচার জন্য দরজায় ধাক্কাধাক্কি শুরু করে। এতে ট্রাকের জানালা খুলে যায়। তা দিয়েই বাইরে বেরিয়ে আসেন তিনি।

মফিজ বলেন, ট্রাকটি উল্টে যাওয়ায় পিছনে থাকা ছাত্ররা চাপা পড়ে। দুই ছাত্রের হাত ও পা ধরে টানাটানি করেও বের করতে ব্যর্থ হই। এক পর্যায়ে স্থানীয় কয়েক জনের সহায়তায় ট্রাকটি কাত করার চেষ্টা করি। তাতেও ব্যর্থ হই।

মফিজ জানান, এক সময় তিনি সেখান থেকে পালিয়ে যান। গ্রামে এক আত্মীয়ের বাসায় গিয়ে ভেজা কাপড় পাল্টে চট্টগ্রামে যান। সেখানে দু'দিন থেকে লক্ষীপুরে মজু চৌধুরীর হাট ও সেখান থেকে সি-ট্রাকে বরিশালে যান।

এই দুর্ঘটনার কথা গোপন রেখে ৫/৬ দিন আগে বরিশাল সদর উপজেলার চরবাড়িয়া ইউনিয়নের উলাল বাটনা গ্রামে ভাগ্নির শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে উঠেন মফিজ। সেখান থেকেই তাকে বৃহস্পতিবার গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

আবু তোরাব বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের বেঁচে যাওয়া শিক্ষার্থী এমরান, নিজাম উদ্দিন ও বোরহান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, দুর্ঘটনার আগে মফিজ মোবাইল ফোনে কথা বলছিলেন।

মায়ানি গ্রামের মোক্তার বাড়ি এলাকার বাসিন্দা কৃষক নুরুল আবছার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, মফিজ মূলত চালকের সহকারী। মাঝে মাঝে তিনি গাড়ি চালাতেন। তার কোনো লাইসেন্স নেই।

এ ব্যাপারে মফিজ জানান, তিনি ২০/২২ বছর ধরে ট্রাক চালান। তবে প্রয়োজনীয় কোনো কাগজপত্র তার নেই।

দুর্ঘটনায় নিহত ৩৮ ছাত্রের মধ্যে তার আপন ছোট ভাইয়ের ছেলেও রয়েছে বলে জানান মফিজ।

তিনি বলেন, ওমান প্রবাসী ছোট ভাই শাহ আলমের একমাত্র সন্তান ছিলো নয়ন। সে মায়ানি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্র ছিলো।[/বাংলা]


SOURCE (http://www.bdnews24.com/bangla/details.php?cid=2&id=165624&hb=3)