View Single Post
  #16  
Old October 3, 2012, 10:10 PM
PoorFan PoorFan is offline
Moderator
 
Join Date: June 15, 2004
Location: Tokyo
Posts: 14,335

None of the so called Islamic political parties, those who obviously felt pain for Rohingya people being attacked ... now seems lost their heart.

Quote:
প্রকাশিত ঘটনা থেকে প্রশ্ন উঠে আসে, রামু-টেকনাফ-উখিয়া ও পটিয়ার মতো এলাকায় কজন বৌদ্ধধর্মাবলম্বী বাড়িতে ফেসবুক আছে? যারা আক্রমণ করেছে তাদের কজনের ঘরেই বা আছে ফেসবুক যে ট্যাগ করা ছবি দেখে সবাই মুহূর্তে ঝাঁপিয়ে পড়ল ঘুমন্ত মানুষের ওপর? এই প্রশ্ন যে উত্তরের দিকে অনিবার্যভাবে আমাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে, তা হলো, দোহাইটি তুচ্ছ হলেও আক্রমণের কারণটি হঠাৎ উত্তেজনার আকস্মিক প্রকাশ নয়। এটি পূর্বপরিকল্পিত; এর ব্যাপ্তি এবং শৃঙ্খলা পরিষ্কারভাবে বুঝিয়ে দেয় রাজনৈতিক উদ্দেশ্য থেকেই এই আক্রমণ। ‘কারা’ ও ‘কেন’ এটি ঘটিয়েছে, সরকারকে অবশ্যই খুঁজে বের করতে হবে। যে এলাকায় পুলিশ, বিডিআর, র‌্যাবের ছড়াছড়ি, সেই এলাকায় কয়েক প্রহর ধরে বসতির পর বসতিতে আগুন দেওয়া হলো, অথচ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর টিকিটি পাওয়া গেল না! তবে কি প্রশাসনের পৃষ্ঠপোষকতায় এই কাজ হলো? আবার দুই মন্ত্রী ঘটনাস্থল থেকে চলে যাওয়ার পরেই (৩০ সেপ্টেম্বর) কীভাবে সন্ধ্যায় আবারও আগুন দেওয়া হলো নতুন করে পাঁচ মন্দিরে? এই দুই প্রশ্নের সন্তোষজনক জবাব সরকারকেই দিতে হবে। যদি সরকার এই প্রশ্নের উত্তর দিতে ব্যর্থ হয়, তা হলে ঘটনা আরও মারাত্মক। সে ক্ষেত্রে প্রশ্ন হলো, কারা তবে প্রশাসন চালায় ওসব এলাকায়?
Read more in Prothom Alo
Reply With Quote