View Single Post
  #109  
Old September 7, 2011, 04:33 AM
Naimul_Hd's Avatar
Naimul_Hd Naimul_Hd is offline
Cricket Guru
 
Join Date: October 18, 2008
Location: Global City of Australia
Favorite Player: Shakib, Mashrafe
Posts: 13,524

 ম্যাচের আগে নাটক


বড় আয়োজনে কিছু সমস্যা হতেই পারে। সেদিক থেকে আর্জেন্টিনা-নাইজেরিয়া ম্যাচের আয়োজক বাফুফের কিছু ত্রুটি এড়িয়ে যাওয়াই ভালো। তবে নানা ঘটনার ভিড়ে বিশৃঙ্খলার ব্যাপারটা উঁকিঝুঁকি মারছেই।

সোমবার রাতে মেসিদের ডিনারটা ফ্লপ শো তাই বলে। বেঞ্চের কয়েকজন খেলোয়াড়কে নিয়ে ডিনারে এসেছিলেন আর্জেন্টিনার কোচ আলেসান্দ্রো সাবেলা। অথচ এই ডিনারের জন্য প্রায় ৩০০ অতিথিকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল।

মেসিসহ আর্জেন্টিনার গোটা দল কেন এল না—তা নিয়ে আয়োজকরা হলেন বিব্রত। কারণ, মেসিকে কাছ থেকে দেখার, ছবি তোলার, নানা বায়না মেটানোর ব্যবস্থা হিসেবে এই ডিনারকেই বেছে নিয়েছিলেন আয়োজকেরা। ভারতীয় সেলেব্রিটি ম্যানেজমেন্ট গ্রুপের সঙ্গে বাফুফের চুক্তিতে কী আছে, সেটা কেউ জানে না। চুক্তিতে যদি থাকে ডিনারে মেসিরা থাকবেন, তাহলে তো তাঁদের থাকারই কথা!

কাল দুপুরে বাফুফের সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনকে এসব ব্যাপারে খানিক বিব্রত দেখাল। বললেন, ‘চুক্তি একটা আছে। কিন্তু আমরা আসলে চুক্তিটি পড়ে দেখিনি। অনেক কিছুই হয়েছে মুখে মুখে। তার মধ্যে ডিনারও ছিল। উকিলকে চুক্তি দেখিয়েছি, তিনি বলেছেন ঠিক আছে। ব্যস, আমরা আর পড়ার দরকার মনে করিনি।’

অনুসন্ধানে জানা গেল, বাফুফে, সেলেব্রিটি ম্যানেজমেন্ট গ্রুপ ও আর্জেন্টিনা—তিন পক্ষের মধ্যেই সমন্বয়ের অভাব ছিল। বাফুফের ধারণা, সেলেব্রিটি তাদের এক রকম কথা বলেছে তো আর্জেন্টিনাকে বলেছে আরেক রকম। বাফুফেকে বলেছে, মেসিসহ পুরো আর্জেন্টিনা দল ডিনারে আসবে। অন্যদিকে আর্জেন্টিনাকে হয়তো জানিয়েছে, ডিনারে দু-চারজন গেলেই হবে। একটি সূত্রের খবর, আর্জেন্টিনা মনে করেছিল, ডিনারটা বোধ হয় বাণিজ্যিকভাবে করা হচ্ছে। বাণিজ্যিকভাবে হলে তাদেরও টাকার ভাগ দেওয়ার কথা। সেটি না দেওয়ায় তারা বেঁকে বসেছে।

আরও জানা গেছে, বেক্সিমকোর ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা মেসির সঙ্গে ছবি তুলতে চেয়েছিলেন। মেসিরা ডিনারে না আসায় সেটি অসম্ভব হয়ে পড়ে। পরে এ নিয়ে শুরু হয় মনোমালিন্য। রাতে বাফুফে অফিস থেকে ম্যাচের অবিক্রীত সব টিকিট নিয়ে যায় বেক্সিমকো। কাল দিনভর বাফুফে ভবনে যাঁরা টিকিটের জন্য গিয়েছেন, সবাইকেই বলে দেওয়া হয়েছে টিকিট নেই, সব আইএফআইসি ব্যাংকে।

সবচেয়ে ভয়াবহ খবর, আর্জেন্টিনা টিম ম্যানেজমেন্ট নাকি ম্যাচ খেলতে অস্বীকৃতি জানিয়ে আয়োজকদের চরম দুশ্চিন্তায় ফেলে দেয়। সোমবার বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে অনুশীলন সেশনে মাঠের ভেতরে এত লোক ঢুকে পড়েছিল যে মাঠ ছিল গিজগিজে। আর্জেন্টিনার অনুশীলনে কিনা এত লোক! মাঠে নিরাপত্তাকর্মী এবং নানা অনাহূত লোকের ভিড়ে মেসি একবার কর্নার কিক নিতে এসেও না নিয়েই চলে যান!

মাঠে এত লোক দেখে আর্জেন্টিনা টিম ম্যানেজমেন্ট থেকে প্রশ্ন তোলা হয়, কেন টিকিট বিক্রি করা হলো অনুশীলনের। বাফুফে বলেছে, তিন পক্ষের সম্মতিতেই অনুশীলন উন্মুক্ত ছিল এবং টিকিট বিক্রি করা হয়েছে। ঘটনা যা-ই হোক, পুরো ব্যাপারটা ছিল অপেশাদারির চূড়ান্ত নিদর্শন এবং যার জেরে প্রতিটা ক্ষেত্রেই কোনো না কোনো জট পাকিয়েছে। এ ছাড়া পরশু নাকি অনুশীলনের টিকিটও কালোবাজারিতে বিক্রি হতে দেখা গেছে। বাফুফে থেকে সৌজন্য টিকিট নিয়ে সুযোগসন্ধানীরা ধুমছে ব্যবসা করে নিয়েছে। চলেছে নানা বাণিজ্য।

কাল সকাল থেকেই অবশ্য বাফুফে ভবনে অন্য রকম ছবি—শীর্ষকর্তারা টিকিটের আবদার সামলাতে হিমশিম খেয়েছেন। নানা জায়গা থেকে ফোন এসেছিল। কখনো ফুটবলে পা পড়েনি, এমন অচেনা সব লোকের দাপটে হারিয়ে গেল ফুটবলের অনেক চেনা মুখই।
Reply With Quote