facebook Twitter RSS Feed YouTube StumbleUpon

Home | Forum | Chat | Tours | Articles | Pictures | News | Tools | History | Tourism | Search

 
 


Go Back   BanglaCricket Forum > Cricket > Cricket

Cricket Join fellow Tigers fans to discuss all things Cricket

Reply
 
Thread Tools Display Modes
  #1  
Old March 19, 2017, 08:45 AM
Tigers_eye's Avatar
Tigers_eye Tigers_eye is offline
Cricket Savant
 
Join Date: June 30, 2005
Location: Little Rock
Favorite Player: Viv Richards, Steve Waugh
Posts: 30,029
Default Articles (Bangla and English) for the SLan test win

Yes, keep it at one place so that we can go back and enjoy when needed. Also those who didn't watch may enjoy reading them at one go.

Isam's report: (cricinfo)
http://www.espncricinfo.com/sri-lank...y/1087570.html
Tamim 82 seals Bangladesh's landmark win in 100th Test

Bangladesh 467 (Shakib 116, Mosaddek 75, Sarkar 61, Mushfiqur 52, Herath 4-82)and 191 for 6 (Tamim 82, Dilruwan 3-59) beat Sri Lanka 338 (Chandimal 138, Mehedi 3-90) and 319 (Karunaratne 126, Shakib 4-74) by four wickets

A win on foreign soil against a strong home side was Bangladesh's dream for a long time. They achieved it in their 100th Test by beating Sri Lanka with four wickets to spare at the P Sara Oval in Colombo.

There were plenty of nervy moments though, especially after Shakib Al Hasan was dismissed with 29 still required in the 191-run chase. Then, umpire S Ravi adjudged Mushfiqur Rahim lbw, only to be overturned on review. In the next over, Rangana Herath could not hold on to a rather touch return catch offered by Mosaddek Hossain.

Mosaddek continued to attack, hitting the next ball over cover for four. Two more boundaries took Bangladesh within six runs of their target. But the debutant fell before the win could be achieved. Eventually it was a Mehedi Hasan sweep that took the team over the line, sparking wild celebrations.

It was Bangladesh's first win over Sri Lanka in Test cricket. They came into this game on the back of a timid performance in Galle. Then they had to deal with the messy axing of Mahmudullah and a late injury to wicketkeeper Liton Das. It must have been difficult to summon the focus needed to level the series.

Read the rest from the link.
__________________
The Weak can never forgive. Forgiveness is an attribute of the Strong." - Gandhi.

Last edited by Tigers_eye; March 19, 2017 at 09:26 AM..
Reply With Quote

  #2  
Old March 19, 2017, 08:54 AM
Tigers_eye's Avatar
Tigers_eye Tigers_eye is offline
Cricket Savant
 
Join Date: June 30, 2005
Location: Little Rock
Favorite Player: Viv Richards, Steve Waugh
Posts: 30,029

Herath's view:
'Poor catching, batting cost us, not complacency' - Herath
http://www.espncricinfo.com/sri-lank...y/1087660.html

Rangana Herath, the Sri Lanka captain, said he was confident of defending 191 in the fourth innings, although they would have liked more runs to work with. Herath has been the central figure in each of Sri Lanka's five most recent home victories, when they have bowled out visiting sides for 171 (West Indies), 161, 183 and 160 (Australia), as well as dismissing Bangladesh for 197 in Galle.

However, though Herath struck early in Bangladesh's final-day chase at P Sara, removing Soumya Sarkar and Imrul Kayes off consecutive deliveries, he couldn't sufficiently quell Tamim Iqbal or the Bangladesh middle order.

"I really thought that we could defend it, because we have played games with India and Pakistan and defended low scores," Herath said. "We also had three spinners. When we got two early wickets, I felt the same way, but after lunch they were in an attacking mood and scored some quick runs. That's where the match slipped from us in the fourth innings."
....
__________________
The Weak can never forgive. Forgiveness is an attribute of the Strong." - Gandhi.
Reply With Quote
  #3  
Old March 19, 2017, 09:00 AM
Tigers_eye's Avatar
Tigers_eye Tigers_eye is offline
Cricket Savant
 
Join Date: June 30, 2005
Location: Little Rock
Favorite Player: Viv Richards, Steve Waugh
Posts: 30,029

অনেক অর্জনের এক জয়! - Prothom Alo

শততম টেস্ট জয়ের সেই ঐতিহাসিক মুহূর্ত। ছবি: এএফপি
২৬ ডিসেম্বর ২০০৪। নিজেদের শততম ওয়ানডেটা জয় দিয়েই উদ্‌যাপন করেছিল বাংলাদেশ। ঢাকার বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের কাছে ভারত হেরেছিল ১৫ রানে।

সেই বাংলাদেশ নিজেদের শততম টেস্টটাকেও রাঙালো জয় দিয়ে। কলম্বো পি সারা ওভালে শ্রীলঙ্কাকে ৪ উইকেটে হারিয়ে চতুর্থ দল হিসেবে শততম টেস্টে জয় পেল বাংলাদেশ।
বাংলাদেশের আগে নিজেদের শততম ম্যাচে জয় পেয়েছিল অস্ট্রেলিয়া, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও পাকিস্তান। মজার ব্যাপার, বাংলাদেশের মতো এই তিনটি দলও নিজেদের শততম ওয়ানডেতেও জয় পেয়েছিল। তবে অস্ট্রেলিয়া, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও পাকিস্তান আগে জিতেছিল শততম টেস্ট, পরে শততম ওয়ানডে।
মাইলফলক টেস্টের জয় বাংলাদেশকে কী কী উপহার দিল, তা এক নজরে জেনে নেওয়া যাক।

১—১৮তম টেস্টে এসে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম জয় পেল বাংলাদেশ।
৪—জিম্বাবুয়ে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ইংল্যান্ডের পর চতুর্থ দল হিসেবে বাংলাদেশের কাছে হারল শ্রীলঙ্কা। দেশের বাইরে বাংলাদেশের চতুর্থ জয়ও এটা।
৯—বাংলাদেশের নবম টেস্ট জয় এটি। প্রথম ১০০ টেস্টে বাংলাদেশের চেয়ে কম জয় ছিল শুধু নিউজিল্যান্ডের (৭)।
৩—রান তাড়া করে তৃতীয়বারের মতো টেস্ট জিতল বাংলাদেশ। ২০০৯ সালে গ্রেনাডা টেস্টে ২১৫ রানের লক্ষ্য পেরিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ও ২০১৪ সালে মিরপুরে ১০১ রানের লক্ষ্য ছুঁয়ে জিম্বাবুয়েকে হারায় বাংলাদেশ।
৮—বাংলাদেশের শেষ আটটি টেস্ট জয়েই দলে ছিলেন সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিম। এই ত্রয়ী ছিলেন না শুধু ২০০৫ সালে বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট জয়ে।
৮২—তামিমের ৮২, রান তাড়ায় বাংলাদেশ জিতেছে, এমন ম্যাচের চতুর্থ ইনিংসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। ২০০৯ সালে গ্রেনাডা টেস্টের চতুর্থ ইনিংসে ৯৬ রানে অপরাজিত ছিলেন সাকিব।
৩০০—এই প্রথম বাংলাদেশের বিপক্ষে দুই ইনিংসেই ৩০০ রানের বেশি করেও হারল কোনো দল।

http://www.prothom-alo.com/sports/ar...A6%9C%E0%A7%9F
__________________
The Weak can never forgive. Forgiveness is an attribute of the Strong." - Gandhi.
Reply With Quote
  #4  
Old March 19, 2017, 09:06 AM
Tigers_eye's Avatar
Tigers_eye Tigers_eye is offline
Cricket Savant
 
Join Date: June 30, 2005
Location: Little Rock
Favorite Player: Viv Richards, Steve Waugh
Posts: 30,029

Sanga and Mahela's congratulations.

টেস্টে শ্রীলঙ্কার যে কজন ব্যাটসম্যান বাংলাদেশকে নিয়মিত ভুগিয়েছেন, তাঁদের মধ্য সবার ওপরে থাকবেন কুমার সাঙ্গাকারা। টেস্ট ক্যারিয়ারে বাংলাদেশের বিপক্ষে কখনো পরাজয়ের অভিজ্ঞতা হয়নি এই লঙ্কান কিংবদন্তির। আজ পি সারা ওভালে তাঁর উত্তরসূরিদের হয়েছে তিক্ত অভিজ্ঞতা। হেরাথদের হতাশায় ডুবিয়ে দুর্দান্ত এক জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। ম্যাচের পরপর তাই মুশফিকদের অভিনন্দন জানিয়েছেন ‘সাঙ্গা’।

এক টুইট বার্তায় সাঙ্গাকারা লিখেছেন, ‘বাংলাদেশের অসাধারণ জয়। তারা নিজেদের শততম টেস্টে সাহস ও প্রত্যয় দেখিয়েছে তারা। দারুণ এক টেস্ট ম্যাচ।’ গল টেস্টে হারের পর কলম্বোয় দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে, শ্রীলঙ্কাকে ৪ উইকেটে হারিয়ে সিরিজে ১-১ সমতা এনেছে বাংলাদেশ। দুই দলের হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পরও সিরিজের নিষ্পত্তি না হওয়াটা একটু আফসোসও তৈরি হচ্ছে সাঙ্গাকারার, ‘সবচেয়ে সুন্দর হতো যদি সিরিজে আরও একটা টেস্ট থাকত। হতাশার বিষয় হচ্ছে, সেটা নেই। সামনে এটা ভেবে দেখা যেতে পারে।’
বাংলাদেশের টেস্ট জয়ে অভিনন্দন জানিয়েছেন আরেক লঙ্কা কিংবদন্তি মাহেলা জয়াবর্ধনে, ‘অভিনন্দন বাংলাদেশ। প্রথম টেস্টে হারের পর অসাধারণ ঘুরে দাঁড়িয়েছে তারা। শ্রীলঙ্কা যেভাবে লড়েছে তাতে গর্বিত।’ তাঁদের আরেক সতীর্থ ও বর্তমান ধারাভাষ্যকার রাসেল আরনল্ড লিখেছেন, ‘দারুণ করেছে বাংলাদেশ। বিশেষ উপলক্ষে অসাধারণ অর্জন।’ তবে রাসেল ভীষণ মুগ্ধ তামিম ইকবালের ৮২ রানের দুর্দান্ত ইনিংসে, ‘তামিম খুব সুন্দর খেলেছে। ওর ব্যাটিংয়ে সবই ঠিক ছিল।’
http://www.prothom-alo.com/sports/ar...A6%95%E0%A7%87

‘এই জয়ের চেয়ে ভালো আর কী হতে পারে!’

আউট হয়ে ফিরছেন। কিন্তু মোসাদ্দেক হোসেনের মুখে লেগে রয়েছে হাসি। কারও কাছে বেখাপ্পা লাগেনি বিষয়টা! একটু পরেই যে শততম টেস্টে ঐতিহাসিক জয় আসবে। আর মাত্র ২ রান দূরে সে জয়। তাতেই বুঁদ হয়েছিল সবাই। টেলিভিশনের সামনে যাঁরা বসে ছিলেন, সামনে এগিয়ে আরেকটু ঝুঁকে পড়েছেন। কলম্বোর পি সারা ওভালে গ্যালারিতে থাকা বাংলাদেশের সমর্থকেরা ততক্ষণে উৎসবের আয়োজন শুরু করে দিয়েছন। পতপত করে উড়ছিল লাল-সবুজ পতাকা।

প্যাভিলিয়নে ফেরার পথে মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে জুটি বাঁধতে চলা মেহেদী হাসান মিরাজকে হাসিমুখে কি যেন বলছিলেন মোসাদ্দেক। মাঠে নামলেন মিরাজ। আর দড়ির প্রান্তে এসে দাঁড়ান সৌম্য সরকার, শুভাশিস রায়, রুবেল হোসেন, তামিম ইকবালরা। সবকিছুই উপভোগ্য লাগছিল তখন। আনন্দ পূর্ণতা পেল খানিক পরেই। রঙ্গনা হেরাথের বলে সুইপ করে মিরাজ জয়সূচক ২ রান তুলে নিলে। রান নিতে নিতেই যেন উড়ে যেতে চাইলেন মিরাজ। অন্য প্রান্তে ডানা মেলে দিলেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমও।

তামিম-সৌম্যরা ততক্ষণে এক দৌড়ে পৌঁছে গেলেন মাঠে। পেছনে গোটা দল। একে অপরকে বাঁধলেন আলিঙ্গনে। গ্যালারিতেও একই দৃশ্য। বাংলাদেশের প্যাভিলিয়নে কোচ হাথুরুসিং ভাসছিলেন অভিনন্দনে। শততম টেস্টে ঐতিহাসিক জয়ের উদ্‌যাপন তো এমনই হওয়ার কথা। এই জয় যে বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসে বিশেষ কিছু সেটা মাঠে দাঁড়িয়ে ডিন জোন্সকে দেওয়া সংক্ষিপ্ত সাক্ষাৎকারে বললেন সাকিব আল হাসান, ‘এটা দারুণ এক অনুভূতি। শততম টেস্ট, এর চেয়ে ভালো আর কী হতে পারে!’ এমন দিনে তামিমও কী আর ভিন্ন কথা বলবেন! বন্ধু সাকিবের কণ্ঠে কণ্ঠ মেলালেন তিনি, ‘সর্বোপরি এটা অসাধারণ এক জয়।’

এমন দিনে বাংলাদেশের ক্রিকেটের দুই নায়ককে এক সঙ্গে পেয়েছেন। এত সহজে কী আর ছাড়বেন ডিন জোন্স! সাকিবের কাছে জানতে চাইলেন ভবিষ্যতে বাংলাদেশের ক্রিকেটকে কোথায় দেখছেন তিনি। সাকিব উজ্জ্বল ভবিষ্যৎই দেখছেন বাংলাদেশের, ‘আমরা যেভাবে উন্নতি করছি তাতে ভবিষ্যতে আরও অনেক ম্যাচ জিতব। দেশের মাটিতে ভালো সময় যাচ্ছে আমাদের। এখন দেশের বাইরেও ভালো খেলতে হবে।’
__________________
The Weak can never forgive. Forgiveness is an attribute of the Strong." - Gandhi.
Reply With Quote
  #5  
Old March 19, 2017, 09:08 AM
Tigers_eye's Avatar
Tigers_eye Tigers_eye is offline
Cricket Savant
 
Join Date: June 30, 2005
Location: Little Rock
Favorite Player: Viv Richards, Steve Waugh
Posts: 30,029

জয়ের নায়ক যাঁরা

মেহেদী হাসান মিরাজের ব্যাট থেকে উইনিং শট। ব্যাট ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে আনন্দে আত্মহারা হয়ে দৌড় দিলেন মুশফিকুর রহিম। শ্রীলঙ্কাকে ৪ উইকেটে হারিয়ে শততম টেস্টটা স্মরণীয় করে রাখল বাংলাদেশ। সীমানা থেকে ছুটে আসছেন সতীর্থরা, জয়ের আলিঙ্গনে বাঁধতে হবে না মিরাজ-মুশফিককে!

১৬ তারিখ সন্ধ্যাবেলায়ও কী এমন দৃশ্য দেখার চিন্তা মাথায় আনতে পেরেছিলেন কেউ? ৬ রানের মধ্যে ড্রেসিংরুমে ফিরেছেন তিনজন। দিনের আলো ফুরিয়ে আসার আগে সাকিব আল হাসানের পাগলাটে ব্যাটিংটা তো ভয়ই ধরিয়ে দিয়েছিল। লিড নেওয়া তো দূরের কথা তৃতীয় দিনের সকালে কতক্ষণ টিকতে পারে বাংলাদেশ, সেটা নিয়েই বরং বাজি ধরতে চেয়েছেন অনেকে। সেখান থেকেই ঘুরে দাঁড়িয়েছে মুশফিকের দল। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশ পেয়ে গেছে টেস্টে প্রথম জয়। যে জয় সবার মিলিত পারফরম্যান্সেরই ফল। তবে আলাদা করে কয়েকজনের কথা তো বলতেই হয়—

তামিম ইকবাল (১৩১ রান)
প্রথম ইনিংসে ভাগ্যের সহায়তায় ৪৯ করেছিলেন। চোখ জুড়ানো ইনিংস না হলেও দল একটা ভিত্তি পেয়েছিল সে ইনিংসে। তবে আজ শেষ দিনে দলের বড্ড প্রয়োজনের মুহূর্তে ঠিকই তামিম ইকবাল দেখা দিলেন নিজের রূপে। লক্ষ্যটা ছোট হলে খোলসে না ঢুকে ইতিবাচক খেলার কথা শুনিয়েছেন অনেকেই। সেটাই করেছেন, প্রথম থেকেই বুঝিয়ে দিয়েছেন রঙ্গনা হেরাথ কিংবা দিলরুয়ান পেরেরার স্পিন জুজুতে সিঁটিয়ে থাকবেন না। তাই বলে অযথা ঝুঁকিও নেননি, নিজের প্রথম চার মারতে হেরাথের প্রথম বাজে বল পাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করেছেন। ততক্ষণে ইনিংসের ১৩ ওভার পেরিয়ে গেছে, গত কিছুদিনের দুই ওপেনিং সঙ্গীকেও হারিয়ে ফেলেছেন। কিন্তু অপর প্রান্তে সাহসী সাব্বির রহমানকে পেয়েই ওসব ভুলেছেন। চমৎকার দুটি ঘণ্টা উপহার দিয়েছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটকে। পেরেরাকে অযথা মারতে গিয়ে ওভাবে আউট না হলে সেঞ্চুরিটা পেয়েই যেতেন তামিম!

সাকিব আল হাসান (১৩১ রান ও ৬ উইকেট)
তামিম হতে পারেন দ্বিতীয় ইনিংসের নায়ক। তবে ম্যাচের মূল চরিত্র বলুন কিংবা আলোচিত চরিত্র—সব জায়গাতেই এগিয়ে সাকিব। দ্বিতীয় দিনের শেষ আধা ঘণ্টার ওই ব্যাটিংয়ের কোনো যুক্তি খুঁজতে যাওয়ার মানে হয় না। সিরিজ সেরা হওয়ার পরও সে প্রশ্নের উত্তরটা দিতে পারেননি সাকিব নিজেই। কিন্তু তৃতীয় দিনেই সাকিব দেখিয়ে দিয়েছেন কেন তিনি সাকিব! প্রথমে অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের আক্রমণাত্মক ব্যাটিং দেখে নিজেকে সামলে নিয়েছেন, ইনিংস গড়ায় মন দিয়েছেন। মুশফিকের বিদায়ের পরও হাল ছাড়েননি, অভিষিক্ত মোসাদ্দেক হোসেনকে সাহস জুগিয়েছেন, চিনিয়েছেন ক্রিকেটের অভিজাত সংস্করণের নানা দিক। মাত্র অষ্টম ব্যাটসম্যান হিসেবে দেশের ১০০তম টেস্টে সেঞ্চুরি করেই দায়িত্ব ভুলে যাননি। দ্বিতীয় ইনিংসেও শ্রীলঙ্কার ব্যাটসম্যানদের কাঁপিয়ে দিয়ে তুলে নিয়েছেন ৪ উইকেট।
এখানেও গল্পটা শেষ হয়নি। ৮ উইকেট হাতে রেখে মাত্র ৬০ রান দরকার এমন অবস্থায় হঠাৎ ঝড়, ১২ রানের মধ্যে চলে গেলেন তামিম-সাব্বির। দুর্ভাগ্যের চরম সীমায় থাকা এক অদ্ভুতড়ে আউট হয়ে ফেরার আগে অন্তত আজকের বিবেচনায় গুরুত্বপূর্ণ ১৫ রান করে গেছেন।

সাব্বির রহমান (৮৩ রান)
দ্বিতীয় দিন বিকেলে সৌম্য সরকার আউট হওয়ার পরই চমকে উঠলেন সবাই। সাব্বির নামছেন কেন? টেস্টে চার নম্বরে নামেন দলের সেরা ব্যাটসম্যান। যিনি দলের সব ভার নিজের কাঁধে নিয়ে দলকে টেনে নিতে পারেন ভয়ংকর বিপর্যয়ের মধ্য দিয়েও। মুশফিক কিংবা সাকিবের মতো ব্যাটসম্যান থাকা সত্ত্বেও সাব্বিরের তাই এমন মুহূর্তে নামার কারণটা বোঝা যাচ্ছিল না। কলম্বো টেস্টের পর সেটা এখন সবারই বুঝে ফেলার কথা-সাহস! প্রথম ইনিংসে ৪২ রান করেছেন, কিন্তু আজ এক রান কম করেও সে ইনিংসকে ছাড়িয়ে গেছেন। ১৯১ রানের লক্ষ্যে ২২ রানে পরপর দুই বলে আউট সৌম্য-ইমরুল। শ্রীলঙ্কার মাঠে চতুর্থ ইনিংসে বাংলাদেশের আগের সব ধসের কথা মনে পড়ছিল তখন। তখনই চরিত্র, সাহস আর ক্ষমতার সর্বোচ্চটা দেখিয়ে দিয়েছেন। তামিমের সঙ্গে তাঁর ১০৯ রানের তৃতীয় উইকেট জুটিতেই মাঝের ওই ধসটা সামলে নিতে পারল বাংলাদেশ।

মোস্তাফিজুর রহমান (৫ উইকেট)
গত ছয় মাসে বাংলাদেশ টেস্ট খেলেছে ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড ও ভারতের বিপক্ষে। টেস্টগুলো খারাপ খেলেনি বাংলাদেশ, তবু একটা অস্বস্তি ছিলই। মোস্তাফিজ যে খেলতে পারছেন না! শ্রীলঙ্কা সফরেই দুঃখটা ঘুচল। প্রথম ইনিংসে ২ উইকেট পেলেও, সবার প্রিয় মোস্তাফিজকে পাওয়া গেল কাল। দুর্দান্ত এক ৭ ওভারের স্পেলে ৩ উইকেট নিয়ে শ্রীলঙ্কার ব্যাটিংয়ের মেরুদণ্ড গুঁড়িয়ে দিলেন। তাতেই বড় লিড নেওয়ার স্বপ্নটা শেষ হয়েছে স্বাগতিক দলের, বাংলাদেশও দেখতে শুরু করেছে জয়ের স্বপ্ন।

মুশফিকুর রহিম (৭৪ রান ও ৫ ডিসমিসাল) ও মোসাদ্দেক হোসেন (৮৮ রান)
তৃতীয় দিনটা বাংলাদেশ শঙ্কা নিয়ে শুরু করেছিল। সাকিবকে নিয়ে স্থিতি এনে দিয়েছিলেন অধিনায়ক মুশফিকুরই। ফিফটি করে আউট হলেও ওই ইনিংসের গুরুত্ব তাই কমছে না। দ্বিতীয় ইনিংসে সেটাও পাননি, তবু এ ইনিংসের গুরুত্বটা বোধ হয় এর চেয়েও বেশি। হঠাৎ এক ঝটকায় বিপাকে পড়েছে দল, এমন অবস্থায় মাথা ঠান্ডা রেখে ঠিকই দলকে জয় এনে দিয়ে তবেই মাঠ ছেড়েছেন।
অভিষেক ইনিংসেই ৭৫ রান। দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১৩। কিন্তু নিক্তির দুই দিকে দুটি ইনিংসকে রাখুন। ধারে-ভারে পিছিয়ে থাকবে না কোনোটাই। ভাগ্যের পরিহাসে সাকিবের বিদায়ের পর দুশ্চিন্তার কালো মেঘ উড়া উড়ি করছিল আকাশে। কিন্তু অধিনায়কের সঙ্গী হয়ে দলের জয় নিশ্চিত করে এসেছেন। শুধু আউটের শটেই বোঝা গেছে, এটা তাঁর অভিষেক টেস্ট। জয় থেকে ২ রান দূরে, এমন অবস্থায় আউট হয়েছেন মোসাদ্দেক। তাতেও খুব একটা অসুবিধা হয়নি, অভিষেক টেস্টের সবচেয়ে উপহার তো পেয়ে গেছেন, জয়!
__________________
The Weak can never forgive. Forgiveness is an attribute of the Strong." - Gandhi.
Reply With Quote
  #6  
Old March 19, 2017, 09:19 AM
Tigers_eye's Avatar
Tigers_eye Tigers_eye is offline
Cricket Savant
 
Join Date: June 30, 2005
Location: Little Rock
Favorite Player: Viv Richards, Steve Waugh
Posts: 30,029

lol, suru hoiye gasy:
http://www.bhorerkagoj.net/%E0%A6%AE...6%95%E0%A6%BE/
মুশফিকদের জন্য কোটি টাকা পুরস্কার বিসিবির

টেস্ট খেলুড়ে দলগুলোর মধ্যে বাংলাদেশই সবার পরে নিজেদের শততম টেস্ট ম্যাচ খেলেছে। আর চতুর্থ দল হিসেবে নিজেদের শততম টেস্টে জয় পেয়েছে টাইগাররা। এর আগে নিজেদের শততম টেস্টে জয় পায় অস্ট্রেলিয়া, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও পাকিস্তান।

এই ম্যাচে জয়ের ফলে দুই ম্যাচের সিরিজটি ১-১ ড্র হয়েছে। এবারই প্রথম শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টেস্ট ক্রিকেটে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। গত অক্টোবরে টেস্ট ক্রিকেটে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথমবারের মতো জয় পেয়েছিল টাইগাররা। টেস্টে এখন পর্যন্ত জিম্বাবুয়ে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ইংল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কাকে হারিয়েছে বাংলাদেশ।

শততম টেস্টে বাংলাদেশের ঐতিহাসিক জয়

কাগজ স্পোর্টস প্রতিবেদক: জয় দিয়েই নিজেদের শততম টেস্টের উপলক্ষটা রাঙিয়ে রাখল বাংলাদেশ। কলম্বো টেস্টে শ্রীলঙ্কাকে ৪ উইকেটে হারিয়েছে মুশফিকুর রহিমের দল।

অস্ট্রেলিয়া, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও পাকিস্তানের পর চতুর্থ দল হিসেবে শততম টেস্ট জিতল বাংলাদেশ। শেষ দিনে শ্রীলঙ্কার দেওয়া ১৯১ রানের লক্ষ্য দিনের দেড় ঘন্টা বাকি থাকতেই পেরিয়ে যায় বাংলাদেশ। দলের জয়ে বড় অবদান ৮২ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলা তামিম ইকবালের।

মিরাজের ব্যাটে বাংলাদেশ উৎসব: শেষ মুহূর্তের টানটান উত্তেজনায় উইকেট বিলিয়ে দিয়ে আসতে হয় ধীর গতিতে ব্যাট করা মোসাদ্দেক হোসেনকে (১৩)। এরপরই ক্রিজে নেমে অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন মেহেদী হাসান মিরাজ। হেরাথের ফুল টস বল শর্ট ফাইন লেগ অঞ্চলে ঠেলে দিয়ে দুই রান নিয়ে জয় নিশ্চিত করেন মিরাজ। আর তাতেই শততম টেস্টে শ্রীলঙ্কাকে ৪ উইকেটে হারিয়ে ইতিহাসে নাম লেখায় বাংলাদেশ।

রিভিউতে বাঁচলেন মুশফিক: ইনিংসের ৫২ তম ওভারে পেরেরার বলে এলবিডব্লিউর আবেদন করলে আঙুল উঁচিয়ে আউটের সিগনাল দেন আম্পায়ার। কিন্তু রিভিউতে দেখা যায় বল অফ-ব্রেকে স্টামের বাইরে দিয়ে বেরিয়ে যায়। ফলে বেঁচে যান মুশফিক।

বোল্ড হয়ে ফিরলেন সাকিব: দিলরুয়ান পেরেরার বল সাকিবের ব্যাট স্পর্শ করে স্টাম্পে আলতো চুমু এঁকে দেয়। বল উইকেটরক্ষকের পা ছোঁয়ার পর বেল পড়ে যায়। পড়ে টিভি রিপ্লেতে দেখা যায় সাকিবের ব্যাট স্পর্শ করেই বল স্টাম্পে আঘাত করে। ফলে বোল্ড হয়ে ব্যক্তিগত ১৫ রানে সাজঘরে ফিরতে হয় সাকিবকে।

রিভিউতে ফিরলেন সাব্বির: এলবিডব্লিউর আবেদনে আম্পায়ার সাড়া না দেওয়ায় রিভিউ নেয় শ্রীলঙ্কা। তাতেই সর্বনাশ হয় সাব্বিরের। দিলরুয়ান পেরেরার করা ইনিংসের ৪১ তম ওভারের পঞ্চম বলে এলবিডব্লিউ হলে সাব্বিরের ৪১ রানের ইনিংসে ছেদ পড়ে।

৮২ রান করে ফিরলেন তামিম : পেরেরার বলে ছক্কা হাঁকাতে গিয়ে চান্দিমালের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান তামিম। যাওয়ার আগে ১২৫ বলে ৮২ রান করে যান।

তামিম-সাব্বির জুটির সেঞ্চুরি: হেরাথের বল ডাবলস নিয়ে সাব্বিরের সঙ্গে জুটির শতরান পূরণ করেন তামিম। তাদের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে জয়ের সুবাস পাচ্ছে বাংলাদেশ। এ জুটিতে সেঞ্চুরি করতে তামিম ৭৬ এবং সৌম্য ৩৪ রান করেন।

তামিমের ফিফটি: দলীয় ২২ রানেই দুই উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়েছিল বাংলাদেশ। তবে দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে সেই চাপ থেকে বাংলাদেশকে টেনে তুলেছেন তামিম। গুরুত্বপূর্ণ সময়ে তুলে নিয়েছেন ফিফটি। সান্দাকানের করা ইনিংসের ২৭তম ওভারের দ্বিতীয় বলেই ডাবলস নিয়ে ফিফটি পূরণ করেন তিনি। ২৮তম জন্মদিনের ঠিক একদিন আগে দেশকে বড় একটি উপহার দিতে যাচ্ছেন দেশসেরা এ ওপেনার। টেস্টে এটি তামিমের ২২তম ফিফটি। ৮৭ বল মোকাবেলায় ৩টি চারে ফিফটি পূরণ করেন তামিম।

দলীয় ৫০ ছাড়িয়ে বাংলাদেশ: সৌম্য ও ইমরুলের ব্যাক টু ব্যাক পতনের পর প্রতিরোধ গড়ে তুলছেন তামিম ও সাব্বির। তাদের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে দলীয় ফিফটি ছাড়িয়ে গেছে বাংলাদেশ। আগ্রাসী এ দুই ব্যাটসম্যানের কাঁধে চড়ে বহুদূর যাওয়ার স্বপ্ন দেখছে বাংলাদেশ।

প্রথম বলেই আউট ইমরুল: ব্যাক টু ব্যাক আঘাতে সৌম্যের পরের বলেই ইমরুল কায়েসকে ফেরালেন হেরাথ। হেরাথের করা ইনিংসের নবম ওভারের শেষ বলেই গুনারত্নের হাতে স্লিপে তালুবন্দি হয়ে ডাক মেরে সাজঘরে ফেরেন ইমরুল কায়েস।

শুরুতেই ফিরলেন সৌম্য: ১৯১ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে ওপেনিংয়ে ভালো কিছু করতে পারলেন না সৌম্য সরকার। হেরাথের করা ইনিংসের নবম ওভারে পঞ্চম বলে থারাঙ্গার হাতে ক্যাচ হয়ে সাজঘরে ফেরেন সৌম্য। সাজঘরে ফেরার আগে ২৬ বলে ১০ রান আসে তার ব্যাট থেকে।

৩১৯ রানে অলআউট শ্রীলঙ্কা: নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুতে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়লেও শেষপর্যন্ত লোঅর্ডার ব্যাটসম্যানদের নৈপুণ্যে দলীয় সংগ্রহ ৩০০ ছাড়িয়েছে শ্রীলঙ্কা। নবম উইকেটে দিলরুয়ান ও লাকমলের ৮০ রানের গুরুত্বপূর্ণ জুটিতে ভর করে বাংলাদেশকে ১৯১ রানের টার্গেট দিয়েছে স্বাগতিক দল।

রানআউটের খড়গে কাটা দিলরুয়ান: বাংলাদেশি বোলারদের ভুগিয়ে শেষপর্যন্ত রানআউটের খড়গে কাটা পড়ে মাঠ ছাড়লেন দিলরুয়ান পেরেরা। মিরাজের বলে ব্যক্তিগত ৫০ রানে শুভাশীষের হাতে রানআউটে কাটা পড়েন পেরেরা।

দিলরুয়ানের ফিফটি: দলের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে ফিফটি তুলে নিয়েছেন দিলরুয়ান পেরেরা। গতকাল ২৬ রানে অপরাজিত থেকে দিনশেষ করেছিলেন তিনি। আজ সেখান থেকে ব্যাট করতে নেমে ফিফটি তুলে নিয়েছেন লঙ্কান এ তারকা। ১৬৫ বল মোকাবেলায় টেস্ট ক্যারিয়ারের চতুর্থ ফিফটি তুলে নেন তিনি। তার দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে বড় সংগ্রহের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে স্বাগতিকরা।
দলীয় ৩০০ ছাড়িয়ে শ্রীলঙ্কা: নবম উইকেট জুটিতে ক্রমেই বিপদজনক হয়ে উঠছে শ্রীলঙ্কা। লাকমাল ও দিলরুয়ানের ব্যাটে চড়ে দলীয় ৩০০ ছাড়িয়ে গেছে স্বাগতিকরা। টি-টোয়েন্টি স্টাইলেই ব্যাট করে শ্রীলঙ্কার লিড টেনে লম্বা করছেন তারা।

১৫০ ছাড়িয়ে লঙ্কানদের লিড: পঞ্চম দিনের শুরুতেই আক্রমণাত্মক খেলছেন লঙ্কান দুই টেইলঅর্ডার ব্যাটসম্যান লাকমাল ও দিলরুয়ান পেরেরা। তাদের দারুণ সূচনায় দিনের শুরতেই ১৫০ ছাড়িয়েছে বাংলাদেশ লিড। শততম টেস্টে জয়ের স্বপ্ন দেখতে চাইলে খুব দ্রতই তাদের ফেরাতে হবে বাংলাদেশি বোলারদের।

লাকমলকে সতর্ক করলেন আলিম দার: পিচের বিপজ্জনক জায়গায় বুট দিয়ে ক্ষত সৃষ্টি করায় লাকমলকে সতর্ক করছেন অনফিল্ড আম্পায়ার আলিম দার। সাকিবের বল খেলেই রান ছুটেছিলেন পিচের মাঝ বরাবর। এরপর তাকে অফিসিয়াল ওয়ার্নিং দিলেন আলিম দার। লঙ্কানদের হয়ে এরপর কেউ এমন করলে ৫ রান জরিমানা করা হবে।
__________________
The Weak can never forgive. Forgiveness is an attribute of the Strong." - Gandhi.
Reply With Quote
  #7  
Old March 19, 2017, 09:30 AM
Tigers_eye's Avatar
Tigers_eye Tigers_eye is offline
Cricket Savant
 
Join Date: June 30, 2005
Location: Little Rock
Favorite Player: Viv Richards, Steve Waugh
Posts: 30,029

জয়ের আনন্দে বর্ণিল বাংলাদেশের ‘শততম টেস্ট’
প্রকাশিত : ১৯ মার্চ ২০১৭, ০৪:১৬ পি. এম. Print New 0 0 Google +0 0
- See more at: https://www.dailyjanakantha.com/deta....lwm8s3nC.dpuf

জয়ের আনন্দে বর্ণিল বাংলাদেশের ‘শততম টেস্ট’

অনলাইন রিপোর্টার ॥ জয়, জয় এবং জয়। প্রথমে গল টেস্ট হারলেও দ্বিতীয় টেস্টের জয় দিয়েই সমতায় ফিরলো বাংলাদেশ। একই সাথে এই দ্বিতীয় টেস্টের জয়টা একটু বর্ণিল হয়ে রইল। কেননা, বাংলাদেশের শততম টেস্ট বলে কথা।

আর তাই শততম টেস্টের জয় মানেই আনন্দ-উচ্ছ্বাসটাও একটু বেশি।

শততম টেস্টে জয়। দেশের বাইরে বিরল জয়। সিরিজ ড্র। বাংলাদেশের হাতছানি দারুণ কিছুর। এমন স্বপ্নের আবির মেখে দিনটা শুরু হয়েছিল। অবশেষে সেই স্বপ্নটা সত্যিও হয়েছে পি সারা ওভালে কলম্বো টেস্টের শেষ দিনে।

খেলার পঞ্চম দিনে ৪ উইকেট হাতে রেখে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ।

যদিও জয়টা ৫ উইকেটে হতে পারতো তবে শেষ মুহূর্তে একটি উইকেট হারায় বাংলাদেশ। তাতে অবশ্য জয় আটতে থাকেনি। আর ১-১ সমতায় শেষ হলো দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ।

কলম্বোর পি সারা ওভালে লক্ষ্য ছিলো ১৯১ রানের। প্রথম ইনিংসে শ্রীলঙ্কা অলআউট হয় ৩৩৮ রানে। জবাবে, ৪৬৭ রান তোলে টাইগাররা। লিড পায় ১২৯ রান। দ্বিতীয় ইনিংসে লঙ্কানরা ৩১৯ রান তোলে। ফলে, টাইগারদের জন্য টার্গেট দাঁড়ায় ১৯১ রান।

একদিকে নিজেদের শততম টেস্ট, অন্যদিকে বিদেশের মাটিতে শক্তিশালী কোনো দলের বিপক্ষে প্রথমবার জয়ের হাতছানি। সবমিলিয়ে কলম্বোর পি সারা ওভালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পঞ্চম ও শেষ দিনে বেশ রোমাঞ্চ নিয়েই ব্যাটিংয়ে নামে বাংলাদেশ।

জয়ের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে দলীয় অষ্টম ওভারে রঙ্গনা হেরাথের শেষ দুই বলে সৌম্য সরকার ও ইমরুল কায়েস বিদায় নেন। সৌম্য ১০ রান করে উপল থারাঙ্গার ক্যাচে পরিণত হন। পরের বলেই শূন্য রানে থাকা গুনারত্নেকে ক্যাচ দেন ইমরুল।

সৌম্য-ইমরুল দ্রুত ফিরে গেলেও উইকেটে দায়িত্ব নিয়ে খেলতে থাকেন তামিম ইকবাল। তৃতীয় উইকেট জুটিতে সাব্বির রহমানকে নিয়ে ১০৯ রানের জুটি গড়েন। তুলে নেন ক্যারিয়ারের ২২তম হাফসেঞ্চুরি। তবে ব্যক্তিগত ৮২ রানের মাথায় দিলরুয়ান পেরেরার বলে তুলে মারতে গিয়ে চান্দিমালের ক্যাচে পরিণত হন তিনি।

তামিমের পর বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি সাব্বির রহমান। টেস্ট মেজাজে খেলতে থাকা এই হার্ডহিটার পেরেরার দ্বিতীয় শিকারে এলবির ফাঁদে পড়েন। ৭৬ বলে পাঁচটি চারের সাহায্যে ৪১ রান করেন তিনি।

পেরেরার তৃতীয় শিকারে পরিণত হন প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান সাকিব আল হাসান। ব্যক্তিগত ১৫ রানে বোল্ড হয়ে প্যাভিলিয়ন মুখি হন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। জয়ের জন্য দুই রান বাকি থাকতে বিদায় নেন মোসাদ্দেক (১৩ রান)। মুশফিক ২২ রানে আর মিরাজ ২ রানে অপরাজিত থেকে জয়ের আনন্দে মাঠ ছাড়েন।

এর আগে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে সবকটি উইকেট হারিয়ে শ্রীলঙ্কা ৩১৯ রান তোলে। শেষ দিনের শুরুতে দিলরুয়ান পেরেরা ও সুরাঙ্গা লাকমাল বাংলাদেশি বোলারদের হতাশ করে ব্যাটিং করতে থাকেন। জুটি গড়েন ৮০ রানের।

দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশকে বেশ ভুগিয়েছেন দিলরুয়ান পেরেরা। ৫০ রান করলেও খেলেছেন ১৭৪ বল। তবে অবশেষে রান আউটের ফাঁদে পড়েন তিনি। মেহেদি হাসান মিরাজের বলে রান নেওয়ার সময় আউট হন তিনি। এক রান পরেই সাকিব আল হাসানের বলে মোসাদ্দেককে ক্যাচ দিয়ে ৪২ রানে ফেরেন লাকমাল। সাকিব মোট চারটি উইকেট দখল করেন। মোস্তাফিজ তিনটি উইকেট নেন।

সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের চতুর্থ দিনটি (শনিবার) বাংলাদেশের পক্ষেই ছিল। কেননা এদিন লঙ্কানরা নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ২১৪ রান তুলতে আট উইকেট হারায়। দিন শেষে মোট ২৬৮ রান করে। যেখানে লিড পায় ১৩৯ রানের। ওপেনার দিমুথ করুনারত্নের সেঞ্চুরিই (১২৬) তাদের রানের চাকা সচল রাখে। দিলরুয়ান পেরেরা (২৬) ও সুরাঙ্গা লাকমাল (১৬) অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন। চতুর্থ দিন বাংলাদেশি বোলারদের মধ্যে দুর্দান্ত ভূমিকা রাখেন মোস্তাফিজুর রহমান ও সাকিব আল হাসান। দু’জনেই তিনটি করে উইকেট তুলে নিয়ে লঙ্কানদের দ্বিতীয় ইনিংসে ধস নামাতে সাহায্য করেন। মেহেদি হাসান মিরাজ ও তাইজুল ইসলাম একটি করে উইকেট নেন।

এর আগে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা নিজেদের প্রথম ইনিংসে দিনেশ চান্দিমালের সেঞ্চুরিতে ৩৩৮ রান করতে সমর্থ হয়। জবাবে টাইগাররা দাপট দেখিয়ে ম্যাচে আধিপত্য বিস্তার করে। সাকিব আল হাসানের অসাধারণ সেঞ্চুরির সুবাদে ৪৬৭ রান করে হাতুরুসিংহের শিষ্যরা। ম্যাচে পায় ১২৯ রানের লিড।

এদিকে, সকাল থেকেই বাংলাদেশে দর্শকরা চোখ রেখেছিল টেলিভিশনের পর্দায়। কেউ কেউ রেডিতে খেলা শুনেন। জয়ের খবর পৌছা মাত্র আনন্দে মাতোয়ারা গোটা বাংলাদেশও।
__________________
The Weak can never forgive. Forgiveness is an attribute of the Strong." - Gandhi.
Reply With Quote
  #8  
Old March 19, 2017, 09:19 PM
Nocturnal's Avatar
Nocturnal Nocturnal is offline
Cricket Guru
T20 WC 2010 Fantasy Winner
 
Join Date: June 18, 2005
Location: Canada
Favorite Player: ABD / Kalam / Musta
Posts: 9,712

Bangla Daily Samakal (IMO the current best news paper in BD) published a "Special Cover" for this special test win! beat that!

Its accessible via their today's e-paper: http://www.esamakal.net/

Here is what their Chief Editor said:

গোলাম সারওয়ার:
বাংলাদেশের শততম টেস্ট ম্যাচে সমকাল 'জয়ের সুবাস' প্রত্যাশা করেছিল। আমাদের প্রত্যাশা পূরণ হয়েছে। শনিবারই সমকাল সিদ্ধান্ত নেয়, টাইগাররা জিতলে এই ঐতিহাসিক দিনটিকে সমকালও স্মরণীয় করে রাখতে চার পাতার 'বিশেষ কভার' প্রকাশ করবে। এসব ব্যাপারে সমকালের নির্বাহী সম্পাদক মুস্তাফিজ শফির আগ্রহ সমধিক। তারই নেতৃত্বে বার্তা সম্পাদক মশিউর রহমান টিপু, সহযোগী সম্পাদক সবুজ ইউনুস, নগর সম্পাদক শাহেদ চৌধুরী, চিফ রিপোর্টার লোটন একরাম সর্বোপরি খেলাধুলা পাতার সম্পাদক সঞ্জয় সাহা পিয়াল তার 'বাহিনী' নিয়ে কোমর বেঁধে কাজে নেমে পড়লেন। সমকাল পরিবারে আর একজন রয়েছেন, যিনি আমাদের মতোই ক্রিকেট অনুরাগী, তিনি নির্বাহী পরিচালক এস এম শাহাব উদ্দিন। 'স্পেশাল কভারে' তারও আগ্রহ ছিল। সিনিয়র গ্রাফিক ডিজাইনার তারেকের সাপ্তাহিক ছুটি ছিল। তাকেও ডেকে আনা হলো। একেবারে ঝড়ের গতিতে সব কাজ শেষ করে ঘড়ির কাঁটার তির্যক দৃষ্টি সমীহ করে আজকের সমকাল বেরোল। শিরোনাম : ইতিহাস।

__________________
Armchair selectors name their XI and conduct heated selection meetings on internet. Blood young players, some experts cry. Pick the best players, regardless of age, insist others.
Reply With Quote
  #9  
Old March 19, 2017, 11:45 PM
icricket's Avatar
icricket icricket is offline
ODI Cricketer
 
Join Date: February 26, 2015
Favorite Player: BD Players, Starc, Waqar
Posts: 856

I thought this would be a nice place to share the links.

Here is a look back on the history of bd cricket: 2000-2017



I liked Ashraful's Cricket Analogy on Day 4..

__________________
It always seems impossible until it's done
"Oh Allah! Forgive us, Have Mercy on us, Grant us Safety, Guide us, and Provide us with Sustenance." - Allahumma Ameen
Reply With Quote
  #10  
Old March 20, 2017, 03:35 AM
koushik koushik is offline
Cricket Legend
 
Join Date: April 4, 2013
Location: india
Favorite Player: rahul dravid
Posts: 2,152

তামিমের ব্যাটে শততম টেস্টে বাংলার জয়গান
নিজস্ব প্রতিবেদন
২০ মার্চ , ২০১৭, ০৪:৪০:৫৩
"" "" "" ""
ইতিহাস: কলম্বোয় শততম টেস্ট জিতে বিজয়োল্লাস বাংলাদেশের। টুইটার
সম্ভাবনা উঁকি মারতে শুরু করেছিল শনিবার থেকেই। শেষ পর্যন্ত তা বাস্তবে পরিণত করে নাটকীয় ভাবে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে শততম টেস্টে জয় পেল বাংলাদেশ। যার ফলে সিরিজ শেষ হল ১-১।
এর আগে পাকিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং অস্ট্রেলিয়ার রেকর্ড ছিল শততম টেস্টে জেতার। এ বার সেই ক্লাবে ঢুকে পড়ল বাংলাদেশও। শ্রীলঙ্কার মাটিতে টেস্টে এটি প্রথম জয় বাংলাদেশের। এ দিন মুশফিকুর রহিমের দল ম্যাচ জিতল চার উইকেটে। দ্বিতীয় ইনিংসে ১২৫ বলে ঝলমলে ৮২ রান করে ম্যাচের সেরা তামিম ইকবাল।
টেস্টে এর আগে রান তাড়া করে দু’বার জিতেছে বাংলাদেশ। দু’বার পরাজিত দেশ ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং জিম্বাবোয়ে।
জিততে গেলে ১৯১ রান দরকার এই পরিস্থিতিতে খেলতে নেমে এ দিন শুরুতেই ব্যাটিং বিপর্যয়ের মুখে পড়ে বাংলাদেশ। রঙ্গনা হেরাথ-এর (৩-৭৫) বলে আট ওভারের মধ্যেই প্যাভিলিয়নে ফিরে যান বাংলাদেশের দুই টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার (১০) এবং ইমরুল কায়েশ (০)। স্কোরবোর্ডে তখন বাংলাদেশের রান ২২-২। এই অবস্থা থেকেই দলকে জয়ের দিকে টেনে নিয়ে যায় তামিম ইকবালের দাপুটে ব্যাটিং।
লাঞ্চে বাংলাদেশের রান ছিল ৩৮-২। এর পরেই শ্রীলঙ্কার বোলারদের বিরুদ্ধে নিজেদের ছন্দে ফেরেন বাংলাদেশ ব্যাটসম্যানরা। সাব্বির রহমানের (৭৬ বলে ৪১ রান) জুটি বেঁধে বাংলাদেশের জয়ের স্বপ্ন উজ্জ্বল করেন তামিম। দু’জনের জুটিতে ওঠে ১০৯ রান। যদিও জয়ের ৬০ রান আগেই দিলরুয়ান পেরেরার (৩-৫৯) বলে লং অনে দীনেশ চান্ডিমলকে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলয়নে ফেরেন তামিম ইকবাল। এর কিছু পরে সাব্বিরকেও আউট করে বাংলাদেশের ঘাড়ে চেপে বসার চেষ্টা করেছিল রঙ্গনা হেরাথের দল। কিন্তু সেই চাপ কাটিয়ে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার দায়িত্ব নেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম (অপরাজিত ২২) এবং সাকিব আল হাসান (১৫)। চা পানের বিরতির পর ফের ধাক্কা খায় বাংলাদেশ। দ্রুত ১৬২-৫ হয়ে যায় তারা। নড়েচড়ে বসেন পি সারা ওভালে হাজির শ্রীলঙ্কার সমর্থকরাও।
এর পরেই শুরু সেই নাটকীয় পরিস্থিতি। দিলরুয়ান পেরেরার বলে মুশফিকুর রহিমের বিরুদ্ধে শ্রীলঙ্কা এলবিডব্লিউ-এর আবেদন করলে আউট দিয়েছিলেন আম্পায়ার এস রবি। কিন্তু রিভিউ নিয়ে বেঁচে যান মুশফিকুর। এর কিছু পরেই জয়ের দোরগড়ায় এসে আউট হয়ে যান মোসাদ্দেক হোসেন (১৩)। যদিও টেনশন সরিয়ে মেহেদি হাসান মিরাজকে সঙ্গী করে বাংলাদেশকে জয় এনে দেন মুশফিকুর।
এর আগে দিনের শুরুতে আগের দিনের দুই অপরাজিত শ্রীলঙ্কান ব্যাটসম্যান দিলরুয়ান পেরেরা (৫০) এবং সুরঙ্গা লাকমল (৪২) আগের দিনের ১৩৯ রানের সঙ্গে আরও ৫১ রান যোগ করে দিয়ে যান।

http://www.anandabazar.com/khela/ban...hela-new-stry#

Posted via BC Mobile Edition
Reply With Quote
  #11  
Old March 20, 2017, 08:06 AM
Nadim's Avatar
Nadim Nadim is offline
Moderator
 
Join Date: September 16, 2008
Location: Guantanamo
Favorite Player: Innocent Bird
Posts: 48,698

https://twitter.com/ICC/status/843809356789534720

From AI Bulbul
Reply With Quote
Reply


Currently Active Users Viewing This Thread: 1 (0 members and 1 guests)
 
Thread Tools
Display Modes

Posting Rules
You may not post new threads
You may not post replies
You may not post attachments
You may not edit your posts

BB code is On
Smilies are On
[IMG] code is On
HTML code is On



All times are GMT -5. The time now is 05:03 PM.



Powered by vBulletin® Version 3.8.7
Copyright ©2000 - 2017, vBulletin Solutions, Inc.
BanglaCricket.com
 

About Us | Contact Us | Privacy Policy | Partner Sites | Useful Links | Banners |

© BanglaCricket